আমাজন FBA কি?

আমি মোটামুটি নিশ্চিত আপনারা যারা আমাজনে এফিলিয়েট মার্কেটিং করছেন কিংবা বাংলাদেশে ইকমার্স বা এফ-কমার্স ব্যাবসায়ের সাথে জড়িত আছেন সবাই আমাজন FBA ’র নাম শুনেছেন।

আমাজন হচ্ছে ইউএসএ’র বৃহত্তম অনলাইন রিটেইল মার্কেট বা খুচরা বাজার যার কার্যক্রম ইউরোপ এবং ইউকে-তেও আছে। কয়েক বছর আগে আমাজন তাদের এফবিএ প্রোগ্রাম শুরু করে। অনেকেই হয়ত জানেন না কেউ যখন আমাজন থেকে কোন পন্য অর্ডার করেন বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই তা হয় কোন থার্ড পার্টি সেলারের প্রোডাক্ট। যেখানে ওই থার্ড পার্টি সেলার আমাজনে সাপ্লাই দিচ্ছে কিংবা সোজা কথা বলতে আমাজনে এফবিএ বিজনেস করছে।

আমাজন FBA ’র পুর্ন রুপ হচ্ছে ‘Fulfillment By Amazon’’ যার মানে আমাজন তার সকল এফবিএ সেলারদের পন্যগুলো নিজেরাই স্টকে রাখবে। যখন কোন ক্রেতা পন্যটির অর্ডার করবেন তখন আমাজন তার ওয়ারহাউজ থেকে নিজেরাই সম্পূর্ণ প্যাকেজিং এবং আনুসাঙ্গিক কাজগুলো সেরে ক্রেতার কাছে ডেলিভারি পাঠাবেন।

এছাড়াও আমাজন এফবিএ প্রোগ্রামে আমাজন নিজেরাই কাস্টমার সার্ভিস দিয়ে থাকে। পন্য রিটার্ন আনতে হলে তার ব্যাবস্থা করা ও পুনরায় স্টকে নেয়া সব আমাজনেরই চিন্তা এবং তারাই সেসব করে থাকে। তবে একজন কাস্টমারের কাছে এসব নিয়ে দুশ্চিন্তার কিছুই নাই। তারা একই ডেলিভারি অপশন, একই ডেলিভারি ও রিটার্ন পলিসি পাবেন যা আমাজন নিজেরাই সরাসরি সার্ভিস দেয়। ছবিতে আপনারা দেখতে পাচ্ছেন একটা লকেট যা আমাজনে সেল হচ্ছে। লকেটটি ‘Feilaiger’ এবং ‘Fulfilled By Amazon’. এখানে ফেইলাইগার কোম্পানিটি আমাজনে এফবিএ বিজনেস করছে।

 

আমাজন FBA
এখানে লাল বৃত্ত দেয়া জায়গাগুলো খেয়াল করুন। আমাজনের এফবিএ সার্ভিস নিয়ে এই সেলার আমাজনে সেল করছেন।

 

ইউএসএ'র বাইরের একজন সেলার হিসেবে আপনাকে আমাজনে সেল করতে গিয়ে স্টক নিয়ে দুশ্চিন্তা করতে হচ্ছেনা। এখানে কোন আইটেম বা পন্য ১০ পিস বিক্রি করতে যতটুকু স্রম দিতে হয় তেমনি ১০,০০০ পিস বিক্রি করতেও একই শ্রম এবং সময় দিয়ে কাজ করতে হয়। উপরন্তু একজন ক্রেতা পন্য ক্রয়ে পৃথিবীর সব থেকে বড় ব্র্যান্ডের সার্ভিস কোয়ালিটিটাই পায়। যা আপনার হয়ে আমাজন ক্রেতাদের প্রদান করবে।

আর একজন বিক্রেতা হিসেবে আপনি One-man-brand বিজনেস করার সুবিধা পাচ্ছেন যেখানে আপনি চাইলে প্রতিমাসে হাজার রকম আইটেম বিক্রি করতে পারবেন এবং এটা পৃথিবীর যে কোন প্রান্তে বসেই রিমোটলি করতে পারবেন। তাই আপনি চাইলে বাংলাদেশে বসে কিংবা কোথাও ভ্রমনে গেলে এমনকি নেপালে বা ভুটানে বসেও শুধু অনলাইনে কানেক্ট হতে পারলেই আমাজনে আপনার সেলিং মনিটরিং করতে পারবেন। আমাজনে প্রোডাক্ট পাঠাবার পর আপনাকে শুধু সেলিংএর জন্য মার্কেটিং এর ওপর ফোকাস করতে হবে। বাকি কাজ দেখার দায়িত্ব আমাজনের।

 

5

Comments

comments